আগেই কার্যকর পদক্ষেপ নিলে ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব

0

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আগাম সতর্ক বার্তার ওপর ভিত্তি করে দুর্যোগ আঘাত হানার আগেই কার্যকর পদক্ষেপ নিলে দুর্যোগের সম্ভাব্য ক্ষয়ক্ষতি অনেকাংশে কমিয়ে আনা সম্ভব। প্রধানমন্ত্রী বলেন, দুর্যোগ মোকাবিলায় চিরাচরিত ‘দুর্যোগ পরবর্তী সাড়াদান ব্যবস্থাপনা’ থেকে ‘আগাম ব্যবস্থাপনা’ কর্মসূচি গ্রহণের মাধ্যমে জনগণের জানমালের ক্ষয়ক্ষতি বহুলাংশে কমিয়ে এনেছি। ‘দুর্যোগে আগাম সতর্কবার্তা, সবার জন্য কার্যব্যবস্থা’ এই প্রতিপাদ্য নিয়েই ‘আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস ২০২২’ পালিত হচ্ছে। বৃহস্পতিবার রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে ভার্চুয়ালি দিবসটির উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

আবহাওয়াবিদদের তথ্যমতে , আবহাওয়ায় অস্বাভাবিক আচরণ এখন বাড়ছে; সেই সঙ্গে বাড়ছে অতিবৃষ্টি ও অনাবৃষ্টির ক্ষতি। এসব প্রতিকূলতা রক্ষায় আগাম সব ব্যবস্থাপনায় কাজ করে যাচ্ছে দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা মন্ত্রণালয়। বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও ‘আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস-২০২২’ পালিত হচ্ছে বিষয়টি নিয়ে প্রধান মন্ত্রী আনন্দ প্রকাশ করে বলেন, বর্তমানে আকস্মিক বন্যা মোকাবিলা ও ক্ষয়ক্ষতি কমাতে রিমোট সেনসিং, জিআইএস, রাডার, স্যাটেলাইট তথ্য-চিত্র বিশ্লেষণের মাধ্যমে বন্যা আসার ৩ থেকে ৫ দিন আগেই বন্যার পূর্বাভাস ও এর স্থায়িত্ব সম্পর্কে সতর্কবার্তা দেয়া সম্ভব হচ্ছে।

প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, বর্তমান সরকার মানুষের নিরাপত্তার কথা মাথায় রেখে এ পর্যন্ত উপকূলে প্রায় ৪ হাজার ২০০টি বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র, বন্যাপ্রবণ এলাকায় ৪২৩টি বন্যা আশ্রয় কেন্দ্র এবং সারা দেশে ৫৫০টি মুজিব কিল্লা নির্মাণ করেছে। দুর্যোগের ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে ২০৪১ সালের মধ্যে জাতির পিতার স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে দুর্যোগঝুঁকি ব্যবস্থাপনায় সবাই নিজ নিজ অবস্থান থেকে সচেতন থাকবে বলেও আশা ব্যক্ত করেন প্রধানমন্ত্রী।

Share.

Comments are closed.